বৈশাখে কী রাঁধবেন তাঁরা

বৈশাখে কী রাঁধবেন তাঁরা

BDcost Desk:

এবার পহেলা বৈশাখে অভিনেত্রীরা কে কী রাঁধবেন? খবর নিয়েছেন সুদীপ কুমার দীপ

কুমড়ার ফুল ভাজা আমার খুব পছন্দ ববিতা অনেক দিন পর অস্ট্রেলিয়া থেকে ভাই এসেছে। গত সপ্তাহে আমরা তাঁকে নিয়ে যশোর এসেছি। গ্রামের বাড়িতেই এবার উদ্যাপন করব পহেলা বৈশাখ। এখানকার সবাই আমার হাতের রান্না খুব পছন্দ করে। বিশেষ করে ভাই, আমার হাতের সরষে ইলিশ খুব পছন্দ করে। ঠিক করেছি এবার ওর জন্য সরষে ইলিশ রান্না করব। পান্তাভাত আর ইলিশ ভাজা তো থাকবেই। সঙ্গে বিভিন্ন ধরনের সবজি করার কথা ভাবছি। কুমড়ার ফুল ভাজা আমার খুব পছন্দ, সেটাও রাখব মেন্যুতে। তা ছাড়া সন্ধ্যায় পিঠা বানাব। সন্দেশ আর দুধ দিয়ে আমি এক ধরনের স্পেশাল পিঠা বানাই, এবারও সেটা করব। মাংস একেবারেই পরিহার করার ইচ্ছা। ওহ! আমরা কিন্তু মাটির সরাই কিনে রেখেছি। ছোটবেলার মতো এবার সবাই সরাইতে করে খাব।

সানীর জন্য খিচুড়ি রাঁধব মৌসুমী

পহেলা বৈশাখ নিয়ে এবারের সব পরিকল্পনা ওলট-পালট হয়ে গেছে। স্বাধীন আমেরিকায় আসাতে আগে থেকে যা ভেবে রেখেছিলাম তার কোনোটিই হচ্ছে না। আমার দেশে থাকার কথা ছিল। ভেবেছি সানী ও ফাইজার জন্য রান্না করব। কিন্তু স্বাধীনের জোরাজুরিতে আমাকেও আমেরিকা আসতে হলো। ফাইজা আর সানীও কাল আসবে। ওরা এলে রান্নাবান্নার কথা চিন্তা করব। লস অ্যাঞ্জেলসে ইলিশ পাওয়া যায় কি না এখনো জানি না। যদি চোখে পড়ে তাহলে কিনব। গত এক সপ্তাহ ধরে স্বাধীন যা যা খেতে পছন্দ করে সেগুলো রান্না করেছিলাম। কাল হয়তো ফাইজা আর সানীর জন্য খিচুড়ি রাঁধব। সানী আবার খিচুড়ি পছন্দ করে।

শুটকি ভর্তা আর সবজির বিভিন্ন আইটেম করব বিপাশা হায়াত

বিশেষ দিনগুলোতে রান্না করতে আমার খুব ভালো লাগে। আর পহেলা বৈশাখ মানে বাসাতেই একটা উৎসব। এই দিন অনেক প্রিয় মানুষ আসেন। একেকজনের একেক রকম পছন্দ থাকে। তাই অনেক রকম রান্না করতে হয়। তবে বাঙালির ঐতিহ্য পান্তা-ইলিশ আর কাঁচা মরিচ তো থাকবেই। এর সঙ্গে এবার ডাল ভর্তা, শুঁটকি ভর্তা আর সবজির বিভিন্ন আইটেম করব। মাংসও থাকবে, তবে এই দিন ইলিশ রেখে কেউ মাংস খাবে বলে মনে হয় না। বিকেলে পিঠা বানানোর পরিকল্পনা আছে। পরিবারের সবার পছন্দ চিতই পিঠা। শুঁটকি ভর্তা দিয়ে এটা খেতে আমারও বেশ ভালো লাগে।

১০ রকমের ভর্তা বানাব পূর্ণিমা

পহেলা বৈশাখ এলে আজকাল আমরা একটু বেশি বাঙালি হয়ে যাই। কিন্তু এর মধ্যে যে মেকি ভাব ফুটে ওঠে এটা অনেকেই ভুলে যায়। পহেলা বৈশাখ মানে পান্তা-ইলিশ লাগবেই—আমি আর এসবের মধ্যে নেই। এবার ভর্তার দিকে নজর দিতে চাই। অন্তত ১০ রকমের ভর্তা বানাব। এর মধ্যে আলু, ধনেপাতা, শুঁটকিসহ নানা রকমের ভর্তা থাকবে। এই দিন বাসায় দই বানাব বলে ঠিক করেছি। আমার হাতের দই বাসার সবাই খুব পছন্দ করে। এটা এবার স্পেশাল করে বানাতে চাই।
Ref – http://www.nariasianmagazine.com

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Anti-Spam Quiz: